How will my prayer be accepted? ইসমে আজম কি?

  সকল বাঙ্গালী মুসলিমদের প্রতি রইলো পবিত্র ঈদুল ফিতরের অগ্রিম শুভেচ্ছা   আজ আমরা জানবো প্রার্থনা কবুলের কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আমরা অধিকাংশ বাঙ্গালী জন্মগত ভাবেই ধর্মভিরু, ধর্ম বিষয়টি আমাদের নিকট অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, আর তারই রেশ ধরে সমাজের আলেম সমাজ আমাদের ছোট্ট থেকেই স্রষ্টাকে ভয় করার, স্রষ্টাকে খুশি রাখার বিষয়টি নিয়ে নানা বিধ প্রবচন দিয়ে …

মনের আশা পূরনের পরীক্ষিত তদবীরঃ

মনের আশা পূরনের পরীক্ষিত তদবীরঃ “সুবহানাল্লাহি ওয়াল-হামদু-লিল্লাহি ওয়া লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াল্লাহু আকবার, ওয়ালা-হাওলা ওয়ালাক্কুয়াতা ইল্লা বিল্লাহিল আলীয়িল আযীম, রাব্বানা আতিনা ফিদ্দুনিয়া হাসনাতাও, ওয়াফিল আখেরাতে হাসনাতাও, ওয়াক্কিনা আজাবান্নার।। বিধিঃ নিম্নোক্ত নিয়মে দুই রাকাত নফল নামাজ আদায় করিলে যে কোন আশা পূর্ণ হবে। ইনশাআল্লাহ ইহা বহু পরীক্ষিত ও অত্যন্ত ফলপ্রদ একটি আমল যে কেউ শুদ্ধাচারে বিধিমত এই …

বিসমিল্লাহ শরিফের কতিপয় ফজিলতঃ

  মন্ত্রগুরু   বিসমিল্লাহ শরিফের কতিপয় ফজিলতঃ “বিসমিল্লাহ হির রহমানির রাহিম” বিধিঃ অবশ্যই প্রতিটি আমলের জন্য একজন কামেল ব্যক্তির যর্থাথ অনুমতি ও সঠিক বিধি মেনে পড়তে হবে। ১ম) যে কোন সৎ উদ্দেশ্য পূরনের জন্য উক্ত আয়াত শরিফ এক রাত্রে ১২ (বার) হাজার পাঠ করিলে এবং প্রতি হাজারের পর দুই রাকাত নফল নামজ পড়িতে হইবে। ২য়) …

হিংস্র জন্তু জানোয়ারের কাছ থেকে মুক্তিঃ

হিংস্র জন্তু জানোয়ারের কাছ থেকে মুক্তিঃ “ইয়া খালিস ইয়া মুখালিস ইয়া খল্লাস কাম আবেরা সহম কো মুক্কিল তুমকো খ্বাজা তুমকো মঈনুদ্দীন লিএ মোর কাংটা চোহরা নাহর সর্পা বিচ্ছু অমাং চোর চাড় বন্ধায় সত্য নাম আদেশ গুরুকো সাঞ্চা ঈশ্বরো বাচা।” বিধিঃ যে কোন চন্দ্রমাসের প্রথম শুক্রবার রাত্রে কোন নদী তীরে বসে ঘিয়ের প্রদীপ জ্বালীয়ে ধুনী দিয়ে …

যে কোন মুসকিল, বিপদ আপদ হতে মুক্তির তদবীর

দোওয়াঃ বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।  আউজু বিকালেমাতিল্লাহিত তাম্মাতি  মিনশাররি মা খালাকা কুল্লেহা হাসবি আল্লাহু  নে’মাল মাওলা ওয়া নি’মাল ওয়াকীর,  লা হাওলা কুওয়ালাতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিয়্যিল আযীম। বিধিঃ উপরোক্ত দোওয়াটি পাক পবিত্র অবস্থায় যে কোন ঘোর মছিব্বতের সময় বা অধিকাংশ সময় পড়তে থাকলে বা দোওয়াটি মেশক, জাফরান কালীতে লিখে সংগে ধারন করলে যে কোন রকম বিপদ আপদ …

দুই ব্যক্তির মধ্যে ঝগড়া সৃষ্টিঃ

দুই ব্যক্তির মধ্যে ঝগড়া সৃষ্টিঃ “মন্ত্রঃ ওয়জন্না ইন্নাহুল ফিরা কো বল কী তুশশাকো।   (যে দুই ব্যক্তির মধ্যে বিরোধ লাগাবে তাদের নাম উচ্চারন করতে হবে)”     বিধিঃ শনিবার দুপুরের রোদে বসে উপরক্ত মন্ত্র জপ করতে হবে কমপক্ষে তিন মালা এতে করে তাদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হবে। তবে এখানে সবধান থাকতে হবে যে কোন ভাবেই …