Psalm (দোওয়া)

<=*=>

আলহামদু লিল্লাহী আলা
কুল্লি নিয়ামাতিহী, আল
হামদু লিল্লাহী আলা
কুল্লি  লাইহী,
আল হামদু লিল্লাহী কাবলা কুল্লি হালিন, ওয়া
সাল্লাল্লাহু আলা খায়রি খালক্বিহী মুহাম্মাদিঁ ওয়া
আলিহী ওয়া আসহাবিহী আজমাঈন, বিরাহমাতিকা ইয়া আর
হামার রাহিমিন৷
*** ফজিলতঃ ২১ বার পাঠ
করলে হাজার বছরের কাজা নামাজ এর গুনাহ মাফ হয়ে
যাবে৷

আল হামদু লিল্লাহিল্লাযী ফিস সামায়ি আরশিহী, আল
হামদু লিল্লাহিল্লাযী ফিল
আরদি কুদরাতিহী৷ আল হামদু লিল্লাহিল্লাযী ফিল
যান্নাতি  রুইয়াতিহী, আল
হামদু লিল্লাহিল্লাযী ফিল
কুবুরী কাযাইহি, আল
হামদু লিল্লাহিল্লাযী ফিল
বাররি সুলতানিহী, আল
হামদু লিল্লাহিল্লাযী লা
মানযা ওয়ালা মানজা
মিনাল্লাহী ইল্লা ইলাইহী৷ লা হাওলা  ওয়ালা কুয়াতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিয়্যিল আযীম,
ওয়া সাল্লাল্লাহু আলা
খায়রি খালক্বিহী মুহাম্মাদিঁও ওয়া
আলিহী ওয়া আসহা বিহী আজমাঈন৷ বি রাহমাতিকা ইয়া আরহামার রাহিমীন, আল্লাহুম্মা আজিরনী ফী
মুসিবাতী ওয়াখ লুফনী খাইরাম মিনহা৷
*** ফজিলতঃ যে কোন চন্দ্রমাসের প্রথম বৃহস্পতিবার রাত্রে শোয়ার সময় ১৫ বার পরলে নূর নবী
হযরত মোহাম্মাদ (সাঃ)কে
স্বপ্নে দেখবে২০ বার
পাঠ করে ঘুমালে আল্লাহর নূর
স্বপ্নে দেখতে পাবে৷

ইয়া রিজায়ী, ইয়া
মানায়ী,
ইয়া দাওয়ায়ী, ইয়া
শাফায়ী,
ইয়া কাফায়ী, কাফফি আন্নী ইয়া
গাফুর“,
ইয়া গাফুর“, ইয়া
গাফুর
ইয়াগ ফিরলী  খাতি অতি
ইয়াওমা ইয়াব সুনা ইয়া আল্লাহু,
ইয়া আল্লাহু, ইয়া
আল্লাহু,
ইয়া রহমানু, ইয়া
রহমানু,
ইয়া রহমানু, ইয়া
রাহীমু,
ইয়া রাহীমু, ইয়া
রাহীমু,
ইয়া গাফুর“, ইয়া
গাফুর“,
ইয়া গাফুর“, ইয়া
কারিমু,
ইয়া কারিমু, ইয়া
কারিমু,
ওয়া সাল্লাল্লাহু আলা
খাইরি খালক্বিহী ওয়া
নূরী আরশিহী মুহাম্মাদিঁও ওয়া
আলিহী ওয়া আসহাবিহী আজমাঈন৷ বি
রহমাতিকা ইয়া আরহামার রাহিমীন৷
*** ফজিলতঃ ১১ বার পাঠ করলে আল্লাহর কাছে যাহা চাইবে তাহাই পাইবে৷

ফাসাহহিল ইয়া ইলাহী কুল্লা ছাবিম বি হুরমাতি সায়্যিদিল আবরারি সাহহিল বি
ফাদলিকা ইয়া আজিযু৷   ** ইয়া ক্বাজিয়াল হাজাত** 
মনের মাকসুদ পুরন করার জন্য ইহা একটি অদ্বিতীয় দোওয়া।

শুক্র বার জুময়ার নামাজ বাদ
একাগ্রচিত্তে আল্লাহর ধ্যানে নিন্মের অজিফা ৭০
বার পাঠ করবে– 
*” আল্লাহুম্মা আগফিনি বি
হালালিকা আন হারামিকা ওয়া আগনিনী বি ফাদলিকা আম্মান ছিওয়াকা

প্রত্যেক রবি বার
সকালে ৩৬০ বার
ইয়া মুবিনু
পাঠ করলে ইনশাআল্লা সকল কাজে জয় হবে৷

সমবার আকাসের দিকে মুখ করে
১৪১ বার ইয়া
মুতায়ালিও
পাঠ করলে মনো
বাসনা পূর্ন হয়৷

বৃহস্পতিবার রাত্রে এশার নামাজ বাদ
সেছদায় গিয়া ১০০
বার ইয়া আলিমু
পাঠ করে মোনাজাতের মাধ্যমে আল্লাহর কাছে মনের কথা বলতে হবে, এবং
কারও সাথে কথা না বলে
দর
পরতে পরতে ঘুমিয়ে পরতে হবে
ইনশাআল্লা স্বপ্নে তোমার মনের খায়েস জানতে পারবে যা তুমি জানতে চেয়েছিলে৷

শুক্রবার আছর নামাজ বাদ নির্জনে বসিয়া আয়াতাল কুরসি  ৭০ বার
পাঠ করে আল্লাহর কাছে যাহা চাইবে তাহাই পাইবে৷

রাত্রি দ্বি প্রহর সময় ঘরের বারান্দায় গিয়ে তিনটি সিজদা দিয়ে উঠে
১০০ বার ইয়া
ওয়াহাবু
পাঠ করে আল্লাহর কাছে যা
চাইবে,
তিন দিনের মধ্যেই তাহা পাইবে৷

যে কোন দিন
রাত্রি দ্বি প্রহর সময় ঘরের চার কোনে দ্বারিয়ে ৭০
বার করে ইয়া
মুয়িদু
পাঠ করলে
দিনের মধ্যে হারানো ব্যাক্তি ফিরিয়া আসিবে৷
 
শুধু মাত্র আল্লাহর নেয়ামতের জন্য কতিপয় দোয়া দরু

যে কোন দিন
রাত্রি .০০.০০
টার মধ্যে দারিয়ে নিন্মের যে
কোন দোওয়া পাঠ
করে আল্লাহর কাছে যা চাইবে তাহাই পাইবে৷
  • ৩০০০ বার
    ইয়া মুনতাক্বিমু
  • ১২০০ বার
    ইয়া ক্বাদের“”
  • ১০০ বার
    ইয়া সামিউন

 


রবিউল আউয়াল মাসে ৭৭৪১ বার
নিন্মের দোয়া পাঠ
করলে সমস্অভাব দুর হবে– 
আসসালাতু আচ্ছালামু আলাইকা ইয়া রাসুলুল্লাহী৷

ঘুমানোর সময় পাক
পবিত্র বিছানায় শুয়ে ডান হাত
বুকের উপর রেখে আগেপরে ১১
বার দরু শরিফ পাঠ করে
নিম্নের দোয়া ৭০
বার পাঠ করবে,
তবে আল্লাহর নেয়ামত লাভ করতে পারবে– 
*”আল
লীমুল্লাযী ইয়া লামুল জাহরা ওয়াল আখফা

প্র্যেক ফরজ নামাজ বাদ নিম্নের দোয়া ১০০
বার পাঠ করলে আল্লাহর নেয়ামত লাভ করবে
লা
ইলাহা ইল্লাল্লাহুল মালিকুল হাক্কুল মুবিন

সুরা ফাতেহা ১০০০ বার পাঠ
করবে৷

সুরা ইয়াসিন ৪১
বার পাঠ করবে নতুবা প্রত্যহ একবার সুরা ইয়াসিন
একবার সুরা ওয়াক্বিয়া আসমাউল হুসনা পাঠ
করবে৷

৪০ দিন যাবত্ প্রত্যহ ১২৬৭ বার
ইয়া মুগনিয়্যু

১০৭১ বার
ইয়া গানিয়্যু

আগেপরে
১১ বার কারে দর শরিফ পাঠ করে
১৪ বার ইয়া
ওয়াহাবু
পাঠ করে নিন্মের দোয়া ১০০
বার পাঠ করবে
*”
ইয়া ওয়াহাবু হাবলী মিন নিমাতিদ্দুনী ইয়া ওয়াল আখিরাতি ইন্নাকা আন্াল ওয়াহাব৷

প্রতি ওয়াক্ত ফরজ
নামাজ বাদ নিন্মের দোয়া ১৫
বার পাঠ করবে
*”
ইয়া মুসাব্বি বাল
আসবাবে সাব্বিব

পূর্বেপরে
১১ বার করে
দর
শরিফ পাঠ করে
নিন্মের নিয়মে সুরা ফাতেহা ১২১
বার পাঠ করবে-*”
আল হামদুলিল্লাহি রাব্বিল আলামিন, আর
রহমানির রাহিম, মালিকিইয়াও মিদঈন, ইয়াগ্বাকানা বুদু ওয়া
ইয়াগ্বাকানাস তাঈন, ঈহিদিনা সিরাতাল মুস্তাকিম,
সিরাতাল্লাজিনা আন আমতা আলাই হিম,
মিসলা দাউদা ওয়া
সুলায়মানা ওয়া ইয়্যুসুফা আলাইহিম, গাইরিল মাগদুবি আলাইহিম,
ওয়ালাদ দ্বুয়াললিন৷ আমিন

নিন্মের দোওয়া প্রতহ্য ১০০ বার
পাঠ করবে – ” লাইলাহা ইল্লাল্লাহুল মালিকুল হাক্কুল মুবীন

প্রত্যেক নামাজ বাদ
বার পাঠ
করবে
আল্লাহুম্মা ইয়া গানিয়্যু,
ইয়া হামিদু, ইয়া
মুব িদউ, ইয়া
মুয়ীদু,
ইয়া কারীমু, আকফিনি বে হালালীকা আন হারামীকা ওয়া আগনিনী বি ফাদলিকা আম্মান ছিওয়াকা

প্রত্যহ ফজর নামাজ বাদ ৫০
বার পাঠ করবে
– ”
ছালামুন কাওলাম মীর
রাব্বির রাহিম

পূর্বেপরে
১১ বার দর
শরিফ সহ কারে নিন্মের অজিফা দিনে ২১২২ বার
পাঠ করবে– ” ইয়া
হাইয়্যু ইয়া কাইয়্যুমু

প্রত্যহ জোহর নামাজ বাদ ২১
বার সুরা ফিল
পাঠ করবে৷

যে কোন দিন
রাত্রে বেতের নামাজ আগে ১৭০
বার আয়াতাল কুরসি পাঠ করবে৷

নিন্মের অজিফা এক
িদনে বার হাজার বার (১২,০০০)
পাঠ করবে– *” ইয়া
ক্বাবিয়্যু,
ইয়া গানিয়্যু, ইয়া
আলিয়্যু,
ইয়া বাকিয়্যু

প্রত্যহ এশার নামাজ বাদ অন্ধকারে বসে নিন্মের অজিফা ১০০০ বার পাঠ
করবে-*”
সালামুন হিয়া হাত্তা মাত লাইল ফাজরি

নিয়ম মত নিন্মের
অজিফা গুলো পাঠ করতে হবে =
  1. বার পরে পানিতে ফুক
    দিয়ে খেতে হবে ইয়া মুকিতু
  2. চাষত নামাজ (সালাতুদদ্দোহা) নামাজ বাদে
    ১০০ বার পাঠ করবে
    ইয়া ওয়াহাবু
  3. শেষ রাত্রে আকাসের
    দিকে তাকিয়ে হাত
    তুলে ১০ বার পাঠ করবে ইয়া বাসিতু
  4. শেষ রাত্রে একাগ্রচিত্তে ১০০০ বার পাঠ করবে
    ইয়া সামাদু
  5. এক নাগারে
    দিন ১০০০ বার করে পাঠ করবে
    ইয়া মুনঈমু
  6. ৪১ বার পরে পানিতে ফুক
    দিয়ে খেতে হবে ইয়া শাকুর“”
  7. প্রত্যহ অন্ত্য ১০০ বার পাঠ করবে
    ইয়া মালেকাল মুলকি
    ইয়া যাল জালালী ওয়াল ইকরাম
  8. নিন্মের দোওয়া একাগ্র
    চিত্তে ১০০০ বার পাঠ করতে হবে
    আল্লাহু লতিফুন বে
    এবা িদহী ওয়া ইয়ার যুকু মাইয়্যাশাউ ওয়া
    হুয়াল কাবিউল আজিজ
  9. আসসাবুর“”- সূর্যদ্বয়ের আগে ১০০ বার৷
  10. ইয়া বাকিয়্যুমনযোগের সহিত
    ১০০০ বার৷
  11. ইয়া বা িদয়্যুএকমনে ১০০০ বার৷
  12. ইয়া মুগনিউএক বৈঠকে ১০০০ বার৷
  13. ইয়া মুগনিউপ্রত্যেক রাত্রে আগে
    পরে দর শরিফ সহ ১৩৬ বার৷
  14. ইয়া লতিফু১৩৩ বার যে কোন নির্দিষ্ট সময়৷
  15. ইয়া ওয়ালিয়্যু শুক্রবার
    রাত্রে ১০০০ বার৷
  16. আসসামিউবৃহষ্পতিবার চাষত নামাজ বাদ ৫০০ বার পড়ে মোনাজাত করতে
    হবে৷
  17. ইয়া মুইযযুরবি সোম বৃহষ্পতি শুক্র বার
    বাদ মাগরিব ৪০
    বার
  18. ইয়া বাসিতুচাষত নামাজ বাদ
    ১০ বার
  19. ইয়া ওয়াহ্‌হাবুচাষত নামাজের শেষ
    সেজদায় ১৪ বার পড়তে হবে৷
  20. ইয়া মুব িদউ+ইয়া মুঈদু কোন কিছু হারিয়ে গেলে
    বা ভুলে গেলে পড়তে থাকবে৷
  21. আর রাশিদুবাদ এশা ১০০ বার পড়বে৷
  22. ইয়া গাফ্‌ফারইয়াগফিরলি জুনুবী”-
    বাদ জুময়া ১০০
    বার৷

কুলিল্লাহুম্মা মালিকালমুলকি
তুিতল
মুলকা
মান
তাশা
ওয়া
তান
যিউল
মুলকা
মিম্মান
তাশা
ওয়া
তুইযযু
মান
তাশা
ওয়া
তুযিল্লু
মান
তাশাউ,
বিয়া
দিকাল
খাইর
ইন্নাকা
আলা
কুল্লি  শায়ইন কাদীর৷
তুলীজুল
লায়লা
ফিল
নাহারি
ওয়া
তুলিজুল
নাহারা
ফিল
লায়লি
ওয়া
তুখরিজুল
হাইয়্যা
মিনালমািয়্যাত
ওয়া
তুখরিজুলমাইয়্যিতা
মিনাল
হাই্যে
ওয়া
তারযুকুমান
তাশাউ
বি
গায়রি
হিসাব৷

আল্লাহুম্মা
ইয়া
ফারেজু
আলেহিম
কা
ইশফাল
গাম্মে
মুজিবুদ
দাওয়াতিল
মুজতারিই
না
ইয়া
রাহমানাদ্দুনীয়া ওয়া রাহিমাল
আখিরাতে
ইয়া
আর
হামার
রাহেমিন৷
আস
আলুকা
আন
তার
হামনি
রাহমাতুমিন
ইন
িদকা
ওয়া
তুগনিনী
বিহা
আন
রাহমাতি
মিন
সিওয়াকা৷
হটাত্ বিপদ আপদ দেখা দিলে নিন্মের অজিফা পাঠ করতে থাকবে৷
হাসবুনাল্লাহু
ওয়া
নিমালওয়াকীল
ইয়া
হাইয়্যু
ইয়া
কাইয়্যুমু
বে
রাহমাতিকা
আছতাগিছু৷
প্রত্যহ ৭০
বার
পাঠ
কর
– ”লা
হাওলা
ওয়ালা
কুওয়াতা
ইল্লা
বিল্লাহি
মান
জ্বায়া
ওয়ালা  মানজ্বায়া মিনাল্লাহী
ইল্লা
ইলাই
হী৷৷
প্রত্যেক
নামাজ
বাদ

বার – ” আল্লাহুম্মা
বারিকলী
ফিল
মাওতি
ওয়া
ফীমা
বাদা
মাওতি,
ইলাহী
হাওবীন  আলাইনা সাকরাতিল
মাওতি৷

নিন্মের
দোওয়া
১১১
বার
পাঠ
কর
িবসমিল্লাহির
রহমানির
রাহীম
আল্লাহু
কািফ্‌ফ
ওয়া
কাছুদাতিল
কািফ্‌ফ
ওয়া
দাজাতিল
কািফ্‌ফ
লি
কুল্লি
কািফ্‌ফল
কািফ্‌ফ
ওয়া
নিয়ামাল
কািফ্‌ফ
ল্লিল্লাহিল
হামদু
টিকটিকি ডাকার ফলাফলঃ পূর্ব দিকে ডাকলে, উত্তর দিকে ডাকলে,
বায়ু কোনে ডাকলে শুভ অন্য দিকে ডাকলে অশুভ৷
হাচিঁর ফলাফলঃ পূর্ব দিকে, উত্তর দিকে, বায়ু কোনে শুভ
অন্য দিকে অশুভ৷
কাক ডাকার ফলাফলঃ সকাল
টা থেকে
টার মধ্যে
পূর্ব দিকে,
ি দিকে,
পশ্চিম দিকে, নৈঋত কোনে, ঈশান কোনে, অগ্নি কোনে, বায়ু কোনে৷
সকাল
টা থেকে ১২
টার মধ্যে
পূর্ব দিকে,
ি দিকে,
পশ্চিম দিকে, নৈঋত কোনে, অগ্নি কোনে
সকাল ১২
টা থেকে
টার মধ্যে
পশ্চিম দিকে,
বায়ু কোনে৷
সকাল
টা থেকে
টার মধ্যে
উত্তর দিকে,
নৈঋত কোনে, ঈশান কোনে, বায়ু কোনে৷
ইহা শুভ
নতুবা অশুভ৷
(ইয়া
ওয়াসিউ)
=
যত বেশি পড়া
যায়
(ইয়া
ওয়াজিদু)
=
নির্দিষ্ট স্থানে প্রতিদিন নির্দিষ্ট সংখ্যায়
(ইয়া
মুনইমু)
=
যত বেশি পড়া
যায়
(ইয়া
মালিকাল মুলকি) = প্রতিদিন ৩০০ বার
নিয়মিত
আল্লাহুম্মা আগনিনী বিহালালিকা আন হারামিকা বিফাদ্বলিকা আম্মান ছিওয়াকা” = শুক্রবার নামারে পর
এক আসনে বসেই ৭০ বার
অবশ্যই৷
আল্লাহুম্মাকফিনী বি হালালিকা আন হারামিকা ওয়া আগনিনী বিফাদ্বলিকা আম্মান সিওয়াকা
আল
িলমুল্লাযী ইয়ালামুল জাহরা ওয়াল আগফা
=
পাক পবিত্র বিছানায় শু েএকাধারে /১৪ দিন
পর্যন্
বুকের উপর ডান
হাত রেখে ৭০
বার করে৷
ইয়া
ক্বাবিয়্যু ইয়া গানিয়্যু ইয়া আলিয়্যু ইয়া বাকিয়্যু
= (
১২০০)
এক নাগারে বারো হাজার বার
পড়তে হবে৷
আল্লাহুম্মা ইয়া গানিয়্যু ইয়া হামিদু ইয়া মুব
িদউ ইয়া মুয়ীদু ইয়া ফায়্যালুললিমা ইয়ুরীদ, ইয়া
রাহিমু ইয়া অদূদু আকফিনী বি
হালালীকা আন হারামিকা ওয়া বিত্বাআতিকা
আম্মািছয়াতিকা ওয়া বি
ফাদলিকা আম্মান ছিওয়াকা
সুরা মাদোদুএকবার করে প্রতিদিন
সুরা ইয়ুসুফশুক্রবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্
দিন এক বার
করে৷
যে কোন
দিন শেষ রাত্রিতে দোয়া কবুলের শ্রেষ্ঠ সময়
 
চলবে ………………….

 

Share:

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on pinterest
Pinterest
Share on linkedin
LinkedIn

0 replies on “Psalm (দোওয়া)”

Related Posts

অষ্টমাতৃকা ও ৬৪ যোগিনী

অষ্টমাতৃকা ও ৬৪ যোগিনী সুপ্রভাত এইমহামারীর হাত থেকে উদ্ধার হ ওয়ার জন্য আজকের বিশেষ প্রতিবেদন অষ্টমাতৃকা ও ৬৪ যোগিনী (পূনঃপ্রচার) আপনারা অষ্ট মাতৃকা এবং ৬৪টি

রাশিচক্র বা জন্ম রাশি

জ্যোতিষ ও বিজ্ঞান ………… বাস্তু ও জ্যোতিষ ……………………….. ছয়টি বেদাঙ্গের একটি জ্যোতিষ। প্রাচীনকালে জ্যোতিষ অনুসারে শুভ তিথি- যজ্ঞ করা হত। জ্যোতি অর্থ আলো। বিভিন্ন গ্রহ-নক্ষত্র

বশিকরণ/বাধ্যকরণ/হিপনোটাইজ

  পবিত্র মাহে রমজানুল মোবারক উপলক্ষে মন্ত্রগুরু এ্যসোসিয়েশনের শুভাকাঙ্খীদের বিশেষ অফার~ আজ হতে পবিত্র ঈদুল ফিতরের রাত্রি পর্যন্ত আপনারা পাচ্ছেন সকল বশিকরণ কাজে বিশেষ ছাড়,

বিশ্বাস বনাম বিজ্ঞান

আপনি যগতের যে প্রান্তেই থাকুন না কেনো, এই অবস্থার মুখোমুখি আপনাকে হতেই হবে, গোটা কতক জগৎ সর্ম্পকে বিশেষ জ্ঞানী (অজ্ঞ), ব্যক্তির মতে শুধু আমাদের এশিয়ার

হারানো মনের মানুষকে ফিরে পেতে

আমরা সাধারন মানুষ কখনই আমাদের কাছে যা আছে তার কদর বুঝি না, আমাদের আশে পাশে যারা থাকে তাদের মূল্যায়ন করি না,যারা আমাদের ভালোবাসে তাদের ভালোবাসার

গুরুজী শুনীল বর্মণ
কোলকাতা, আসাম, ত্রিপুরা, তিব্বত, মাদ্রাজ, মায়ানমার, আফ্রিকা, ব্রাজিল, আমাজন সহ বিশ্বের অর্ধশত দেশ ভ্রমন ও জ্ঞান সংগ্রহ ও বিতরণের পর বর্তমানে ইংল্যান্ড হতে মন্ত্রগুরু এ্যসোসিয়েশন পরিচালনা করে মানুষকে সঠিক তান্ত্রিক সেবার দ্বারা উপকৃত করার লক্ষ নিয়ে বাকি জীবন কাটিয়ে দেওয়ার প্রত্যাশায়।

চাঁদের অবস্থান

TodayThursday05AugustWeek 31 | NaomiYWaning Crescent

আমাদের অবস্থান