বিশ্বাস বনাম বিজ্ঞান

আপনি যগতের যে প্রান্তেই থাকুন না কেনো, এই অবস্থার মুখোমুখি আপনাকে হতেই হবে, গোটা কতক জগৎ সর্ম্পকে বিশেষ জ্ঞানী (অজ্ঞ), ব্যক্তির মতে শুধু আমাদের এশিয়ার মুর্খ মানুষদের মাঝেই ওঝা, ঝাড়, ফুক তাবিজ কবজের বিষয়টি সিমাবদ্ধ। আসলে তা নয়, বিশ্বের যে কোন প্রান্তেই এর ছড়া ছড়ি বরং গ্রামের চাইতে অনেকটাই বেশি, খোদ ইংল্যান্ডে, আমেরিকা কিংবা রাশিয়ার মত পাশ্চাত্য দেশগুলোতে যে আধ্যাত্মিক বা তান্ত্রিক দোকান বলুন, প্রতিষ্ঠান বলুন কিংবা আস্থানা বলুন আমাদের দেশের চাইতে অনেক বড় বড়, সেখানে খরচটাও আমাদের দেশের তুলনায় কয়েকগুন বেশি। তবে হ্যা সেই সকল  দেশে আমাদের দেশের মত ফেসবুক তান্ত্রিক, আর টিয়াপাখি তান্ত্রিকের সংখ্যা নেই বললেই চলে, কারন এ যাবৎ পর্যন্ত যতগুলো প্রতারক বাঙ্গালী বা এশিয়ান সেই সকল পশ্চিমা দেশে প্রতারনার ফাদ পাতঁতে সুযোগ নিয়েছে তাদের সকলকেই আমাদের জানামতে সেই সব দেশের গারদে রাত কাটাতে হয়েছে তবে, স্রষ্টার অশেষ কৃপায় আজ অব্দি এশিয়া বিশেষ করে বাংলাদেশের মত অতি উন্নত দেশে আজ অব্দি কোন প্রতারক তান্ত্রিকের বা ফেসবুক তান্ত্রিকের গারদে যেতে হয় নি, তবে হ্যা গোটা কতক রাত্রি কালিন ফোন করা জ্বীনের বাদশাকে সামান্য শাস্তি পেতে হয়েছে। এটা প্রতারনার তুলনায় অতি নগন্য হয়তো ২%। আর এসব বিচার হবেই বা কি করে এদেশে তো বড় বড় রাজনৈতিক চোর গুলোর’ই বিচার হয় না, আর তো এসকল ছিচকে চোরদের বিচার….
যাই হোক আমরা মূল প্রসংগে আসি- আপনি যদি স্রষ্টাকে বিশ্বাস করেন তবে তার অলৌকিকতাকে কিছু হলেও বিশ্বাস করতে হবে, সেই সাথে জ্বিন, ভুত, অশরীরি বা আত্মাকেও বিশ্বাস করতেই হবে। আমরা দেখেছি আপনি যা বিশ্বাস করবেন না, সেটি আপনার আশে পাশে ভিরবেও না। আপনি যদি বিশ্বাস করেন তবে আপনাকে সে বিষয়টি নিয়ে ভুগতেও হবে। আকর্ষণ, বশিকরণ, প্রেম ভালোবাসার ক্ষেত্রে মানুষিক চাপ প্রয়োগ করা বা জোর করার বিষয়গুলো এখন হিপনোটাইজ, মেসমেরিজমের মাধ্যমে অধিকাংশই সফল হয়ে থাকে। আর বর্তমানে পূর্বপূরুষদের মত জাদরেল তান্ত্রিক শক্তিতে মহিয়ান মানুষ এখন পাওয়া মুশকিল বৈ কি অসম্ভব বললেও ভুল হবে না। আমরা দেখেছি সাধারনত অশরীরির ক্ষপরে পরে বাচ্চা ও মহিলারাই বেশি, কিছু দুর্বল মনা পুরুষরাও যে হয় সেটাও আমরা দেখেছি। মূলত পূর্বের কথাই বলি যারা বিশ্বাস করে তাদের ভুগতে হয়। আপনার পরিবারের ছোট্ট শিশু কিংবা স্ত্রী কন্যার ক্ষেত্রে আমরা বাজি ধরে বলতে পারি, আপনি কখনো না কখনো এমন পরিস্থিতির স্বিকার অবশ্যই হয়েছেন যেখানে আপনি বা আপনার পরিচিত কাহারো জন্য বিশ্বাস না থাকলেও বাধ্য হয়ে কোন হুজুর কিংবা তান্ত্রিকের স্বরনাপন্ন হতে হয়েছে। তারা তাতে ভালোও হয়েছে, হয়তো সেই সমস্যার জন্য তাকে ডাক্তার দেখিয়ে বা ঔষধ খাওয়ায়ে কোন ফল পাননি।।
এই সকল কাজ আপনি সাধারন ভাবে করালেও আপনি যদি দেশের যে কোন তান্ত্রিকের মাধ্যমে বড় কিছু কাজ করাতে যান, যেমন ধরুন, বশিকরণ, ভালোবাসার মানুষকে ফিরিয়ে আনা, চাকুরী বিষয়ক, ব্যবসার পতন, পরিক্ষা পাস, বিদেশ গমন, শত্রু নিধনের মত জরুরী কাজগুলোর জন্য একটিও অভিজ্ঞতা সম্পন্য ব্যক্তি আমাদের দেশে নেই, হ্যা যারা এই বিষয় গ্যারান্টি দিয়ে সকলের সাথে গনহারে প্রতারনা করছে তাদের তান্ত্রিক না হয়ে রাজনৈতিক নেতা হওয়া উচিৎ ছিলো। আসলে এই অমানুষগুলোর জন্যই এই চিকিৎসা বিজ্ঞানের উপর সাধারন মানুষ আস্থা হারিয়ে ফেলছে। আপনাদের উচিৎ এই সকল মানুষদের নিকট যাওয়ার আগে বাতাসের উড়ো খবর শুনে কনভেন্স না হয়ে প্র্যাকটিক্যেল কাহারো সাথে প্রথমে যোগাযোগ করুন এরপর সার্ভিস নিন, নতুবা খরচ বেশি হলেও ফরেন সার্ভিস নিন, এতে আপনি সুফল পাবেন নিশ্চিত নতুবা আপনার অর্থ সময় মনোকষ্ট সবকিছুই বরবে ছাড়া কমবে না। বর্তমান বাজারে যে সকল তান্ত্রিক নামে সাইনবোর্ড লাগাচ্ছে প্রত্যেকেরই রয়েছে কয়েকজন থেকে কয়েক হাজার বিভিন্ন দরের দালাল যাদের কাজ হচ্ছে বিভিন্ন স্থানে এলাকায় গাল গল্প করে তার সুনাম ছড়ানো। সুতারাং আপনি নিজে যদি কোন প্র্যাকটিক্যেল সুফল ভোগি না পান তবে এই সকল ভন্ড থেকে দুরে থাকুন তাতেই বরং আপনার জন্য উপকারি।

Share:

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on pinterest
Pinterest
Share on linkedin
LinkedIn

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Posts

অষ্টমাতৃকা ও ৬৪ যোগিনী

অষ্টমাতৃকা ও ৬৪ যোগিনী সুপ্রভাত এইমহামারীর হাত থেকে উদ্ধার হ ওয়ার জন্য আজকের বিশেষ প্রতিবেদন অষ্টমাতৃকা ও ৬৪ যোগিনী (পূনঃপ্রচার) আপনারা অষ্ট মাতৃকা এবং ৬৪টি

রাশিচক্র বা জন্ম রাশি

জ্যোতিষ ও বিজ্ঞান ………… বাস্তু ও জ্যোতিষ ……………………….. ছয়টি বেদাঙ্গের একটি জ্যোতিষ। প্রাচীনকালে জ্যোতিষ অনুসারে শুভ তিথি- যজ্ঞ করা হত। জ্যোতি অর্থ আলো। বিভিন্ন গ্রহ-নক্ষত্র

বশিকরণ/বাধ্যকরণ/হিপনোটাইজ

  পবিত্র মাহে রমজানুল মোবারক উপলক্ষে মন্ত্রগুরু এ্যসোসিয়েশনের শুভাকাঙ্খীদের বিশেষ অফার~ আজ হতে পবিত্র ঈদুল ফিতরের রাত্রি পর্যন্ত আপনারা পাচ্ছেন সকল বশিকরণ কাজে বিশেষ ছাড়,

বিশ্বাস বনাম বিজ্ঞান

আপনি যগতের যে প্রান্তেই থাকুন না কেনো, এই অবস্থার মুখোমুখি আপনাকে হতেই হবে, গোটা কতক জগৎ সর্ম্পকে বিশেষ জ্ঞানী (অজ্ঞ), ব্যক্তির মতে শুধু আমাদের এশিয়ার

হারানো মনের মানুষকে ফিরে পেতে

আমরা সাধারন মানুষ কখনই আমাদের কাছে যা আছে তার কদর বুঝি না, আমাদের আশে পাশে যারা থাকে তাদের মূল্যায়ন করি না,যারা আমাদের ভালোবাসে তাদের ভালোবাসার

গুরুজী শুনীল বর্মণ
কোলকাতা, আসাম, ত্রিপুরা, তিব্বত, মাদ্রাজ, মায়ানমার, আফ্রিকা, ব্রাজিল, আমাজন সহ বিশ্বের অর্ধশত দেশ ভ্রমন ও জ্ঞান সংগ্রহ ও বিতরণের পর বর্তমানে ইংল্যান্ড হতে মন্ত্রগুরু এ্যসোসিয়েশন পরিচালনা করে মানুষকে সঠিক তান্ত্রিক সেবার দ্বারা উপকৃত করার লক্ষ নিয়ে বাকি জীবন কাটিয়ে দেওয়ার প্রত্যাশায়।

চাঁদের অবস্থান

TodayThursday15AprilWeek 15 | TuckerCWaxing Crescent

আমাদের অবস্থান