পীর-সাধনাঃ


পীর-সাধনাঃ

মন্ত্রঃ “সৌ চক্র কী বাবড়ী লাল মোতিয়ন কা হার,
পদ্মনী পানী নীকরী লঙ্কা করে নিহার।
লঙ্কা সী কোট সমুদ্র সী’খাই,
চলো চৌকী রাম চন্দ্র কী আই।
ক্লৌন বীর চলে মস্তান বীর চলে শোকা বীর।
সওয়া হাত জমীন সোখত জল শীতল করে,
থল কো সোখন্ত করে, পবন কো সোখন্ত করে,
পানী কো সোখন্ত করে, অগ্নি কো সোখন্ত করে,
পলীতনী কী ভূত-প্রেত কো পলত করে।
অপনে বৈরী কৌ সোখন্ত করে বতাউ
পরমাত্না কা চক্র চলে ওহা নৌ মদন সোয়া করে।
নহী তো মা কা চুরা পুছ হরা করে।
শব্দ সাংচা চলো যন্ত্র ঈশ্বরী বাচা।”
মন্ত্র শেষে সাধক নিজ নাম উচ্চারন করবে।

v  বিধিঃ পীর বাবার সাধনা খুবই সরল কিন্তু দূর্লভ। সিদ্ধিলাভ করার পর পীরবাবা সাধকের সাথে সাথে থেকে তার সমস্ত কাজ করে দেয়। ইনি কয়েক মুহুর্তের মধ্যে কাজ সমাধা করে দেয়। এই সাধনার দ্বারা আপনি ভূত, প্রেত, পিশাচ, ব্রহ্ম রাক্ষস গ্রস্ত ব্যক্তিকে সুস্থ করে তান্ত্রিক হয়ে যেতে পারেন। যদিও এই সাধনার সময়টা একটু বেশি তবে এই সাধনাটি অত্যন্ত সহজ এবং কোন বাধা বিঘ্ণ ছাড়াই সমাধান হয়ে থাকে। উপরন্ত এই সাধনার যে মন্ত্র তা সাবর মন্ত্র এই মন্ত্রের ধ্যান, ন্যাস বা চৈতন্য বিধান প্রয়োজন হয় না। প্রথমত নিজের ঘরে বা এমন কোন স্থানে যেখানে জনশুন্য, স্থান নির্দিষ্ট করে আসন নির্দিষ্ট করতে হবে। যে কোন চন্দ্র মাসের প্রথম শুক্রবার শুরু করবেন। আসন পেতে বসুন এবং আসনের সামনে একটি যজ্ঞকুন্ড তৈরী করুন, সাথে রাখুন লবঙ্গ, ধুপ, দীপ, ফুল সুগন্ধি ইত্যাদি, ফুল অবশ্য প্রতিদিন নতুন ফুল আনবেন, এবার উপরক্ত মন্ত্রটি উচ্চারন করুন, প্রতি বার মন্ত্র শেষে একটি করে লৌংগধুপ এর গুলি বানিয়ে যজ্ঞকুন্ডে নিক্ষেপ করে প্রনাম করুন। একই ভাবে প্রতিবার মন্ত্র উচ্চারন শেষে যজ্ঞকুন্ডে লবঙ্গ ধুপের গুলি নিক্ষেপ করতে হবে। এভাবে ১০৮ বার করতে হবে। একই নিয়মে একই সময় নির্ধারন করে একটানা ২১ দিন চলবে। এবার শেষের দিন অর্থাৎ ২১ তম দিনে পীর বাবা সাধকের সামনে দৃষ্টিগোচর হবেন, তিনি সাধকের সাথে সাথে থেকে সাধকের সকল কাজ করে দিতে প্রতিশ্রুতি বদ্ধ হবেন। একটি বিষয় খুব সাবধান থাকতে হবে যে সাধনার মাঝে কোন ভাবেই কোন বিরতী চলবে না। অপবিত্র অবস্থায় সাধনা শুরু করবে না। সাধনার কথা বা সধনা চলাকালিন কোন ব্যক্তির নিকট ইহার বিষয়ে মুখ খোলা যাবে না। সাধনার কথা যদি সাধক কারও সামনে বলে ফেলে তবে সাধকের ক্ষমতা নিঃশ্বেষ হয়ে যাবে, পীর বাবা আর সাধকের নিকট আসবে না। সাধনা চলাকালীন সাধক মৌন ব্রত, এবং তান্ত্রিক বিধান মেনে চলবে।।

Share:

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on pinterest
Pinterest
Share on linkedin
LinkedIn

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Posts

অষ্টমাতৃকা ও ৬৪ যোগিনী

অষ্টমাতৃকা ও ৬৪ যোগিনী সুপ্রভাত এইমহামারীর হাত থেকে উদ্ধার হ ওয়ার জন্য আজকের বিশেষ প্রতিবেদন অষ্টমাতৃকা ও ৬৪ যোগিনী (পূনঃপ্রচার) আপনারা অষ্ট মাতৃকা এবং ৬৪টি

রাশিচক্র বা জন্ম রাশি

জ্যোতিষ ও বিজ্ঞান ………… বাস্তু ও জ্যোতিষ ……………………….. ছয়টি বেদাঙ্গের একটি জ্যোতিষ। প্রাচীনকালে জ্যোতিষ অনুসারে শুভ তিথি- যজ্ঞ করা হত। জ্যোতি অর্থ আলো। বিভিন্ন গ্রহ-নক্ষত্র

বশিকরণ/বাধ্যকরণ/হিপনোটাইজ

  পবিত্র মাহে রমজানুল মোবারক উপলক্ষে মন্ত্রগুরু এ্যসোসিয়েশনের শুভাকাঙ্খীদের বিশেষ অফার~ আজ হতে পবিত্র ঈদুল ফিতরের রাত্রি পর্যন্ত আপনারা পাচ্ছেন সকল বশিকরণ কাজে বিশেষ ছাড়,

বিশ্বাস বনাম বিজ্ঞান

আপনি যগতের যে প্রান্তেই থাকুন না কেনো, এই অবস্থার মুখোমুখি আপনাকে হতেই হবে, গোটা কতক জগৎ সর্ম্পকে বিশেষ জ্ঞানী (অজ্ঞ), ব্যক্তির মতে শুধু আমাদের এশিয়ার

হারানো মনের মানুষকে ফিরে পেতে

আমরা সাধারন মানুষ কখনই আমাদের কাছে যা আছে তার কদর বুঝি না, আমাদের আশে পাশে যারা থাকে তাদের মূল্যায়ন করি না,যারা আমাদের ভালোবাসে তাদের ভালোবাসার

গুরুজী শুনীল বর্মণ
কোলকাতা, আসাম, ত্রিপুরা, তিব্বত, মাদ্রাজ, মায়ানমার, আফ্রিকা, ব্রাজিল, আমাজন সহ বিশ্বের অর্ধশত দেশ ভ্রমন ও জ্ঞান সংগ্রহ ও বিতরণের পর বর্তমানে ইংল্যান্ড হতে মন্ত্রগুরু এ্যসোসিয়েশন পরিচালনা করে মানুষকে সঠিক তান্ত্রিক সেবার দ্বারা উপকৃত করার লক্ষ নিয়ে বাকি জীবন কাটিয়ে দেওয়ার প্রত্যাশায়।

চাঁদের অবস্থান

TodayWednesday27JanuaryWeek 4 | KeithLFull Moon

আমাদের অবস্থান